আমরা প্রতিনিয়ত রং তুলি দিয়ে স্বপ্ন সাজাই

আমরা প্রতিনিয়ত রং তুলি দিয়ে স্বপ্ন সাজাই। স্বপ্নের মধ্যেই হয়তো কিছু স্বপ্ন মরে যায়। আমরা কিন্তু তাতে চোখের জল ফেলি না। আমরা মরে যাওয়া স্বপ্নগুলোর মাঝেও বেঁচে থাকতে চাই। স্বপ্নগুলো কে বাঁচিয়ে রাখতে চাই।
আপনি আজ অনেক কষ্টে আছেন। হয়তো কাল ও কষ্টে থাকবেন। ব্যাপার না, পরশু দেখবেন ঠিকই সব সহ্য হয়ে গেছে। জীবন যুদ্ধে আমরা প্রতিদিন ই পরাজিত হই না। একদিন না একদিন জীতে ও যাই।
একদিন কেঁদে কেঁদে চোখ ফোলানো মেয়েটাও একসময় লাল রংয়ের জমকালো শাড়ি পড়ে হাসি হাসি মুখ নিয়ে কনে সেজে বসে থাকে। নতুন কারো জন্য স্বপ্ন বুনে।
সারারাত ফোনে কথা বলে ফজরের আজানের সময় কথা দিয়েছিলো আগামী বছর এই সময় আমরা পাশাপাশি থাকবো। বছর পরিবর্তনের সাথে সাথে কথা দেওয়া মানুষটির ও পরিবর্তন হয়।
তাই বলে কি এরা সবাই পরাজিত হয়েছে ভেবে সামনে এগিয়ে যাওয়া বন্ধ করে দেয়?
স্বপ্ন দেখা ছেড়ে দেয়?
আমাদের. স্বপ্ন গুলো অনেক মসৃন আর সুন্দর হয়। তাই হয়তো জীবনের বাস্তবতায় আমরা চোখ মেলে তাকাতে ভয় পাই। জীবনটা এমন নয়, যেমনটা আমরা ভাবি, জীবনটা আসলে তেমন, যেমনটা ভাবতে ও ভয় পাই আমরা। জীবনটা অমসৃণ আর এবড়ো থেবড়ো। এখানে মরে যাওয়ার জন্য প্রতিনিয়ত হাজারটা কারণ পাবেন, তবে সংগ্রাম করে বেঁচে থাকার জন্য একটা কারণ আপনাকেই খুঁজে নিতে হবে।
নেশার ঘোরে দশ দিনের পঁচা লাশ ও হয়তো তুলোর মতো কোমল আর আরামদায়ক মসলিন মনে হবে। আর শকুনের রক্ত মাখা ঠোঁট হয়তো শিল্পীর আঁকা কোন ছবি তবে ঘোর কেটে গেলে বাস্তবতার বিভৎস রুপ দেখে ভয় পাবেন।
জীবনটা নেশাগ্রস্ত দের জন্য নয়। এখানে একটা স্বপ্ন ভেঙ্গে গেলে, নতুন করে স্বপ্ন দেখার জন্য সাহস আর ইচ্ছের দরকার পড়ে। পিছিয়ে পড়া মানুষগুলোর জীবন ওই পঁচা লাশের মতোই
জীবনটা জটিল নয়। জীবন জীবনের মতোই। সহজভাবে ভেবে দেখুন জীবন আরো সহজ মনে হবে…..।

Leave a Comment