কল্পনা-কল্পনা-কল্পনা

“কল্পনা-কল্পনা-কল্পনা”

কল্পনা করেন আপনি মারা গেছেন!

আপনার বিছানা খালি পড়ে আছে! বালিশটা একপাশে রাখা!

বিছানাটা খুব ঘুছিয়ে ঝাড়মুছ করে রাখা! নোংরা করার জন্যে আপনি নেই যে!

টুথপেস্টটা বেসিনের এক কোণে পড়ে আছে!

টুথব্রাশটা, সে তো ধুলোয় পড়ে গেছে, বাথরুমটা খড়খড়ে হয়ে রয়েছে! পানি পড়েনা বহুদিন!

সকালের নাস্তার টেবিলে সবাই বসা! শুধু আপনার চেয়ারটা খালি!

আপনার বাবা একটু পরপর আপনার চেয়ারের দিকে তাকাচ্ছেন আর বড় করে শ্বাস নিয়ে কিছু একটা ভুলে থাকার ট্রাই করে_খাবার মুখে নিচ্ছেন!

পাশের রুমে টিভির রিমোট হাতে আপনার ভাই বসা! রিমোট নিয়ে ঝগড়া করার জন্যে কেউ নেই! আপনার ফেভারিট টিভি প্রোগ্রাম এর আওয়াজ পাওয়া যাচ্ছে! শুরু হচ্ছে প্রোগ্রাম! সবাই আপনাকে মনে করে আপনার ফেভারিট প্রোগ্রাম দেখছে! শুধু আপনি দেখছেন না!

আপনার পড়ার টেবিলটায় বই এলোমেলো করে রাখা! বইগুলো গুছিয়ে গুছিয়ে রাখতে গিয়ে আপনার মা আপনার চেয়ারটায় বসলেন! এদিক ওদিক তাকিয়ে আপনাকে খুজলেন! তারপর এক নয়নে আপনার বইগুলোর দিকে তাকিয়ে রইলেন! শুধু আপনি নেই!! আপনার বারান্দায় লাগানো ফুলের গাছটা তড়তড় করে বড় হয়ে উঠেছে! কিছু পাতা ছেটে দেয়া দরকার! ছাটা হচ্ছেনা ঠিকমতো! কে ছাটবে?

আপনার বাবা বাজার করে এসেছেন! সমানে কলিং বেল চেপেই যাচ্ছেন! কেউ খুলছেনা বলে আপনার নাম ধরে ডেকে খুলতে বললেন! আপনার মা রান্নাঘর থেকে দৌড়ে এসে দরজা খুললেন! দুজনেই দুজনের দিকে শূন্য চোখে তাকিয়ে রইলেন!

রাতে ঘুমানোর সময় আপনার ঘরের লাইট বন্ধ করতে এসে আপনার বাবা দেখলেন লাইট আগে থেকেই বন্ধ! খা খা করা একটা ঘর! কেউ নেই সেখানে!

শুধু শুন্যতায় ঘেরা চারপাশ! শুধু আপনি নেই বলে! “পাওয়া পাওয়া পাওয়া” বেচে থাকা- এটাই যে কত বড় পাওয়া তা যদি বুঝতাম!!! বেচে আছি, এইতো ভালো আছি, এটাই অনেক! বাকি যা পাচ্ছি সবই বোনাস, যা পাচ্ছিনা সবই মরিচীকা!!!

Leave a Comment